করোনাঃ মহানগর ছাত্রলীগ নেতার জমকালো ক্রিকেট টুর্নামেন্ট উদযাপন!

বন্দর প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাসের ভয়ানক মহামারী পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ সরকার জনসমাগম হয় এমন সব ধরণের আয়োজন বন্ধ রাখতে বলার কথা বলে আসলেও তোয়াক্কা করছে না নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ওয়ালিউল ইসলাম সজিব। তিনি গত শনিবার (৩০ মে) নাসিক ২৫নং ওয়ার্ডের উত্তর লক্ষণখোলা নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগ আয়োজন করে দিবা-রাত্রী ক্রিকেট টুর্নামেন্টের। এমনকি টুর্নামেন্টে সামান্যতম সুরক্ষা ব্যবস্থা মাস্কও পরতে দেখা যায়নি খেলোয়ারদের।
জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ওয়ালিউল ইসলাম সজীব ও তার সহযোগীরা এই দিবা-রাত্রী ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজন করে। যেখানে সারা দেশে এই দুঃসময়ে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ প্রতিনিয়ত অভূতপূর্ব ভূমিকা রেখে ব্যাপক প্রশংসা কুড়াচ্ছে সেখানে বন্দরের উত্তর লক্ষণখোলা এলাকায় ছাত্রলীগ নেতা সজিব এই ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজনের মাধ্যমে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে সমালোচনার ঝড় সৃষ্টি করেছে।

এদিকে দেশের এই ভয়ানক ক্রান্তিকালে এমন জনসমাগমের আয়োজন সমাজের জন্য হুমকিস্বরূপ হওয়ায় এলাকাবাসী এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক করে এলাকাবাসী বলেন, “বর্তমান পরিস্থিতিতে সারা দেশে ছাত্রলীগ সবাইকে সচেতন করে তোলা সহ নানারকম জনকল্যাণকর কাজ করে প্রশংসা কুড়াচ্ছে আর আমাদের উত্তরলক্ষণখোলা এলাকায় ছাত্রলীগ নেতা সজীব আর তার সহযোগীরা ক্রিকেট টুর্নামেন্টের জমকালো আয়োজন করেন। একদিকে তারা যেমন প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অমান্য করেছে অন্যদিকে তারা নিজ দলকেও এলাকাবাসীর কাছে প্রশ্নবিদ্ধ করে তুলেছে। দেশে করোনা ভাইরাসের তান্ডবে যেখানে সবাই আতঙ্কিত ও ভয়ে ভীতসন্ত্রস্ত সেখানে এলাকার মুরুব্বীগণ ও সচেতন মহলের অনিচ্ছা থাকা সত্ত্বেও তারা এই দিবা-রাত্রী ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজন করে জনসমাগম ঘটিয়েছে।”

এলাকাবাসী আরও বলেন, “এই ছাত্রলীগ নেতা সজিব ও তার সহযোগীরা সবসময়ই নিজেদের স্বার্থরক্ষা আর মনোরঞ্জনের জন্য এলাকা আর সমাজের ক্ষতি করে বেড়ায়। তারা দেশের আইন-কানুন, থানা-আদালত কিছুকেই তোয়াক্কা করে না। তারা আগে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানির নাম ভাঙ্গিয়ে এসব অন্যায়-অপকর্ম করতো। এখন নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দুর শেল্টারে নানা ধরণের অপকর্ম ও অপরাধ করে বেড়াচ্ছে। কেউ তাদের এই অনৈতিক কর্মকান্ডের বিরোধীতা করলে কিংবা কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বললেই তাদের কে নানারকম হুমকি দিয়ে ভয়ভীতি দেখায়। তাছাড়া এই সজিব এলাকার ইয়াং সমাজকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে। তরুণ সব ছেলেদের মনমানসিকতা নষ্ট করে ওদেরকে বখাটেপনা শিখিয়ে বিভিন্ন সামাজিক অপরাধে জড়িত করে তাদের কে অনৈতিক শেল্টার দিয়ে নিজের ব্যক্তিগত বাহিনী তৈরী করছে।
এছাড়াও এলাকাবাসী আরও অভিযোগ তুলে বলেন একাধিক মামলা থাকা সত্ত্বেও অদৃশ্য কারণে এই সজিবের বিরুদ্ধে যথাযোগ্য কোনো আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না।”

এবিষয় নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দুর মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্ঠা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

এবিষয় নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ওয়ালিউল ইসলাম সজিব বলেন, এলাকার ছেলেরা খেলার আয়োজন করেন, আমাকে থাকার জন্য দাওয়াত করেছে এজন্য আমি আসছি। এবং আলোকসজ্জা দেখে আমি নিষেধ করি খেলার। তখন তারা বললো কয়েকটা ম্যাচ খেলে বন্ধ করে দিবো।

এদিকে ওয়ালিউল ইসলাম সজিব ও তার সহযোগীদের প্রতিনিয়ত সংঘটিত অন্যায়-অপরাধে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। এলাকাবাসী এর থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রশাসন এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।