থাকছেন না এমবাপ্পে! হতাশা যেনো পিছুই ছাড়ছে না

মনে হয়েছিল কুফা কেটেছে। চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে নেইমার ও কিলিয়ান এমবাপ্পেকে এখন থেকে নিয়মিত পাবে পিএসজি। বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে দুই লেগেই খেলেছিলেন দুই তারকা। ২০১৬ সালের পর প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠা দলটি এবার তাই প্রথমবারের মতো ইউরোপ সেরা হওয়ার স্বপ্ন দেখছিল। কিন্তু ফ্রেঞ্চ কাপের ফাইনাল সে স্বপ্নে অনেক বড় ধাক্কা দিয়েছে। চোটের কারণে আতালান্তার বিপক্ষে ১২ আগস্টের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা হবে না এমবাপ্পের।

সেঁত এতিয়েনের বিপক্ষে সপ্তাহের শুরুতে ফ্রেঞ্চ কাপ জিতেছে পিএসজি। দলের মূল তারকা নেইমারের গোলে এ জয়ের আনন্দ অবশ্য সেদিনই ম্লান হয়েছে প্রথমার্ধে এমবাপ্পের পাওয়া চোটে। তবু কোচ টমাস টুখেল আশা করছিলেন, চ্যাম্পিয়ন লিগের আগে বেশ খানিকটা সময় থাকায় তত দিনে সুস্থ হয়ে উঠবেন দলের মূল গোল স্কোরার। এ মৌসুমে ৩৪ ম্যাচে ৩০ গোলের সঙ্গে ১৮টি গোলে সহায়তাও করেছেন এমবাপ্পে। এমন একজনকে কোয়ার্টার ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে না পাওয়া নির্ঘাত চিন্তায় ফেলবে টুখেলকে। কিন্তু আজ ক্লাবের দেওয়া বিবৃতি বলছে সেটা প্রায় অসম্ভব।

আজ ক্লাবের ওয়েবসাইটে পিএসজি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, ‘সেঁত এতিয়েনের বিপক্ষে ফ্রেঞ্চ কাপ ফাইনালের পর ঘোষণা অনুযায়ী সোমবার কিলিয়ান এমবাপ্পের ডান অ্যাঙ্কেলের চোটের অবস্থা জানার জন্য পরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষায় নিশ্চিত হওয়া গেছে অ্যাঙ্কেলে আঘাতের সঙ্গে লিগামেন্টও ছিঁড়ে গেছে। এ চোট থেকে সেরে উঠতে অন্তত তিন সপ্তাহ সময় লাগে।’

বিবৃতি অনুযায়ী ১২ আগস্টের মধ্যে এমবাপ্পের সেরে ওঠার সম্ভাবনা প্রায় শূন্য। তবে ১৯৯৫ সালের পর প্রথমবারের মতো যদি চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে উঠতে পারে তারা, তাহলে মাঠে নামতে পারবেন এমবাপ্পে।