নারায়ণগঞ্জে তিনটি এলাকাকে লকডাউন করে দেওয়া সময় উপযোগী সিদ্ধান্ত: মো: বদরুল হক

প্রেস বিজ্ঞপ্তী:
করোনা সংক্রমণের ভয়াবহতা বিবেচনায় নিয়ে নারায়ণগঞ্জে তিনটি এলাকাকে লকডাউন করে দেওয়ার সময় উপযোগী সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছে মাদক বিরোধী সচেতন নাগরিক সমাজ নারায়ণগঞ্জ এর আহ্বায়ক বদরুল হক। দেশব্যাপী তথা নারায়ণগঞ্জে করোনা সংক্রমনের ভয়াবহ ঊর্ধ্বগতির জন্য জনগনের অসচেতনতা কে দায়ী করে তিনি বলেন দেশব্যাপী তথা নারায়ণগঞ্জে করোনা সংক্রমিত হওয়ার সূচনা লগ্ন থেকে মাদক বিরোধী সচেতন নাগরিক সমাজ নারায়ণগঞ্জ করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে মাঠ পর্যায়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। করোনা প্রতিরোধে সচেতনতামূলক প্রচারপত্র বিলি ও মাস্ক বিতরণ এবং হাত ধৌত করার ব্যবস্থার মাধ্যমে ১৩ই মার্চ নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব সম্মুখ থেকে করোনা প্রতিরোধে আনুষ্ঠানিক কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয় যা অদ্যবধি চলমান আছে। মাদক বিরোধী সচেতন নাগরিক সমাজ এর আহ্বায়ক বদরুল হক মনে করেন আমাদের অসচেতনতায় দিন দিন মৃত্যুপুরীতে পরিণত হতে যাচ্ছে নগর, শহর, দেশ। আমাদের লাগামহীন অসাবধানতা মৃত্যুকে প্রতিদিন ঘর পর্যন্ত পৌঁছে দিচ্ছে !
যন্ত্রণাদায়ক নির্মম স্বার্থপর এক মৃত্যু জেনেও আমরা বিন্দুমাত্র সচেতন হচ্ছি না। সামাজিক চলাচলে শারীরিক ভাবে একজন অন্যজন থেকে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করছি না ! জনবহুল স্থানগুলোতে আমরা প্রয়োজনে-অপ্রয়োজনে গমন করছি এবং মাস্ক বিহীন চলাচল করছি ! হাত দুটোকে জীবাণুমুক্ত রাখার নির্দেশনা আমরা মানছি না, তা আমরা যেন বেমালুম ভুলেই থাকছি ! হাঁচি বা কাশি দেয়ার সময় আমরা অহরহ অসচেতনতার পরিচয় দিচ্ছি ! জীবন-জীবিকার প্রয়োজনে আমরা গাদাগাদি করে চলাচল করছি ! পার্ক রাস্তা ফুটপাত কাঁচা বাজার মার্কেট বা শপিংমলে অথবা বাস ট্রাক জাহাজ বা গণপরিবহনে আমরা উদাসীনভাবে প্রতি মুহূর্তে মৃত্যুকে আহ্বান করছি !
সার্বিকভাবে এমনি উদাসীনতার কারণে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ছে গোটা সমাজ !এর ফলশ্রুতিতে সচেতন এবং সাবধান থেকেও বেঁচে থাকার পথ অবরুদ্ধ হচ্ছে,মৃত্যুদুত পৌঁছে যাচ্ছে সমাজের সর্বস্তরে ঘর থেকে ঘরে ! নিরাপদ বেষ্টনিতে অবস্থান করে সাবধান ও সচেতন থেকে কেউ করোনার সংক্রমণ থেকে বেঁচে যাবে এমনটা ভাবার আজ সুযোগ নেই! চারপাশের সবাই যখন সংক্রমণের শিকার হয়ে পড়বে যে কাউকে মাধ্যম করে নিশ্চিত ভাবে মৃত্যুদূত তখন প্রতিটি মানুষের দরজায় দাঁড়িয়ে যাবে ! জীবন বা জীবিকার যেকোনো চাহিদা মেটাতে দরজা খুললেই সে নিশ্চিত স্পর্শিত হয়ে পড়বে !
এমনি এক আতঙ্কজনক পরিস্থিতিতে ক্ষুধার্ত মানুষগুলোর মুখে অন্ন পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি অবশ্যই যত দ্রুত সম্ভব মানুষকে প্রথমত, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে বাধ্য করতে হবে !সুস্হ মানুষগুলোকে দ্রুতগতিতে সংক্রমিত মানুষগুলো থেকে আলাদা করে ফেলার প্রচেষ্টা চলমান রাখতে হবে !
এমনি আতঙ্কজনক পরিস্থিতিতে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আমাদের চারপাশ কে নিরাপদ রাখতে হলে দলে দলে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ দেওয়া এখন সময়ের দাবি বলে অভিমত প্রকাশ করেন বদরুল হক ! করোনা প্রতিরোধে স্বেচ্ছাসেবক গন সুরক্ষিত থেকে জনগণকে জনবিচ্ছিন্ন করবে অর্থাৎ সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে রাস্তা ফুটপাত মার্কেট শপিং মল পাড়া-মহল্লা অলিগলিতে জনসাধারণকে সোয়া তিন ফুট থেকে চার ফুট শারীরিকভাবে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করতে উৎসাহিত করবে ! সর্বোপরি আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা যতটা কমিয়ে আনা সম্ভব হয় সে লক্ষে কাজ চালিয়ে যেতেই হবে।
আমরা যদি ভয়াল করোনাকে একটি নির্দিষ্ট সীমারেখায় আটকে দিতে না পারি, তবে আমাদের প্রত্যেককে মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে সদাসর্বদা !
করানোর সংক্রমণ ও মৃত্যুর ধারাবাহিকতা যদি এভাবে চলমান থাকে এমন একদিন আসবে লাশের স্তুপে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা স্তব্ধ হয়ে যেতে পারে !
জনগণকে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে, জনবহুল স্থানে মাস্ক ব্যবহার করতে,হাত দুটোকে জীবাণুমুক্ত রাখতে যত্নসহকারে নিয়ম অনুযায়ী বারবার ধৌত করতে, হাঁচি কাশি দেওয়ার সময় সাবধানতা অবলম্বন করানোর জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি যার-যার সামাজিক অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করে যেতে হবে ! এমনি কাজে চাহিদা অনুপাতে প্রচুর সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবক বা সমাজ কর্মী নিয়োগ দেয়া গেলে আমাদের চারপাশের সমাজ তথা দেশকে মৃত্যুর মিছিল থেকে রক্ষা করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন মাদক বিরোধী সচেতন নাগরিক সমাজ নারায়ণগঞ্জ এর আহ্বায়ক বদরুল হক !