পারস্পরিক আইনি সহায়তা সম্পর্কিত বি আই এম এস টি ই সি কনভেনশনের সাক্ষর ও রেটিফিকেশন

2

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদির পৌরহিত্যে বৃ্হস্পতিবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা অপরাধমূলক বিষয় সমূহে ‘পারস্পরিক আইনি সহায়তা’ সম্পর্কিত ‘বে অব বেঙ্গল ইনিসিয়েটিভ অন মাল্টি সেক্টরেল টেকনিক্যাল এন্ড ইকনোমিক কো-অপারেশন’ (বি আই এম এস টি ই সি) কনভেনশনের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দান এবং এতে সাক্ষর করার জন্য অনুমোদন দিয়েছে। এই কনভেনশনের ১৫ ধারা অনুযায়ী ‘সেন্ট্রাল অথরিটি’ হিসেবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রককে মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। বি আই এম এস টি ই সি সাতটি দেশ নিয়ে গঠিত। এই দেশগুলি হল – বাংলাদেশ, ভূটান, ভারত, মায়ানমার, নেপাল, শ্রীলঙ্কা এবং থাইল্যান্ড।

এই অনুমোদনের ফলে অপরাধমূলক কার্যকলাপ নিয়ন্ত্রণে পারস্পরিক সহযোগিতার ক্ষেত্র আরও কার্যকর করে তুলতে বড় ধরনের অবদান রাখবে। সদস্য দেশগুলির মধ্যে সন্ত্রাসবাদ সংশ্লিষ্ট অপরাধ, আন্ত:দেশীয় সংগঠিত অপরাধ, মাদক পাচার, অর্থ তছরুপ ও সাইবার অপরাধ সহ অপরাধের তদন্ত ও বিচারপর্বের ক্ষমতা ও কার্যকারিতা বৃদ্ধি করতে পারস্পরিক সহযোগিতার ক্ষেত্র আরও ব্যাপকভাবে সম্প্রসারণের লক্ষ্যমাত্রা গ্রহন করা হয়েছে। ভারতীয় দিক থেকে এই কনভেনশনে সাক্ষর দান এবং পাশাপাশি স্বীকৃতি দানের পর স্বীকৃতি সংক্রান্ত দলিল সমূহ বি আই এম এস টি ই সি-র সেক্রেটারি জেনারেলের কাছে গচ্ছিত থাকবে এবং স্বীকৃতি সংক্রান্ত দলিল সমূহের শেষতম নির্দেশিকাটি জমা দেওয়ার ৩০ দিন পর এই কনভেনশন কার্যকর হতে শুরু করবে।