মণিরামপুরের রসুলপুরে ত্রানের চাল বঞ্চিতদের সংবাদ সম্মেলন

2

মণিরামপুর প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাসের মহামারিতে সরকারের ত্রানের চাল থেকে প্রকৃত প্রাপ্যদাররা বঞ্চিত হওয়া ও তাদের পক্ষে কথা বলতে যেয়ে পোষ্যক্যাডার বাহিনীর হাতে লাঞ্চিত হওয়ায় শনিবার সকালে মণিরামপুর উপজেলার রসুলপুর গ্রামের কওয়ামী মাদ্রাসা মাঠে সাংবাদিক সম্মেলন করেন আ,লীগ নেতা আব্দুল খালেক। তিনি লিখিত বক্তব্যে দাবী করেন, আমি চালুয়াহাটী ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড আ,লীগের সাধারণ সম্পাদক।

দলীয় সিদ্ধান্তে ও চেয়ারমানের নির্দ্দেশে প্রবীন আ,লীগ নেতা সাহাবুদ্দিন, মেম্বর আবু জাহান সহ ১০/১২ জনকে সাথে নিয়ে ত্রানের চাল প্রকৃত প্রাপ্যদার হতদরিদ্রদের তালিকা তৈরী করি। ঐ তালিকা ১০ এপ্রিল পরিষদে জমা দিতে যেয়ে জানতে পারি ওয়ার্ড আ,লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান রাতের আঁধারে হতদরিদ্রদের বাদ দিয়ে ধনি পরিবার সহ অদৃশ্যমান তালিকা করে পরিষদে জমা দিয়েছে।

তাৎক্ষনিক প্রতিবাদ করলে চেয়ারম্যান সমযোতার মাধ্যমে পূনরায় তালিকা করার কথা বলে দেয়। কিন্তু এ দিন সন্ধা ঘনাতেই মিজানুর সহ তার ক্যাডার বাহিনী জলিল, রাজ্জাক, মিল্টনসহ ৭/৮ জন আমাকে বাড়ি থেকে বাবুর মোড়ে ডেকে এনে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ মারপিট করে ও পকেটে থাকা তালিকা ছিড়ে ফেলে। মহুত্বে খবরটি আ,লীগ নেতৃবৃন্দ, চেয়ারমান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করি। ইউনিয়ন আ,লীগের আহবায়ক প্রভাষক আবুল হাসান ঘটনাস্থলে এসে বিষয়টি জেনে দোষীকারীদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহন করবেন বলে আশ্বস্থ করে গেছেন।

তিনি সম্মেলনে দাবী করেন ওয়ার্ডের প্রকৃত প্রাপ্যদাররা ত্রানের চালসহ অন্যন্য সামগ্রী পায়। যেন কোন প্রকার পোষ্য ক্যাডার বাহিনীর মাধ্যমে তালিকা করে ত্রানের চাল বিতরন না হয়, যেন প্রকৃত প্রাপ্যদাররা পায় এবং দূর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে যেয়ে আমার মত যেন কেউ লাঞ্চিত বা মারপিটের স্বীকার না হয়। এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উদ্ধোর্ত্তন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি। সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্ডের মেম্বর আবু জাহান, আ,লীগের আমজাত হোসেন, মুজিবর রহমান, সাইফুল ইসলাম, হতদরিদ্র আজিবর, মিজান, খলিলুর, মজিদ, আললমগীর, আছিয়া বেগমসহ ত্রানের চাল থেকে বঞ্চিত বহু নারী পুরুষ।