মাটির নীচ থেকে নারীর লাশ উদ্ধার

2

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে নির্মানাধিন একটি ঘরের ভিটির বালুর নীচ থেকে অজ্ঞাত(১৭) এক নারীর অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করেছে আড়াইহাজার থানা পুলিশ।
পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন সূত্রে জানাগেছে, ১৫ আগষ্ট শনিবার বিকালে উপজেলার বিশনন্দী ইউনিয়নের বিশনন্দী ডেংপাড়া(মিশাইলা পাড়া) এলাকার মৃত সাহাজউদ্দিনের ছেলে মালয়েশিয়া প্রবাসী মামুনের নির্মানাধিন টিনের ঘরের ভিটির বালুর নিচ থেকে এ নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

নির্মানাধিন ঘরের মালিক প্রবাসী মামুনের ভাই ডালিম জানান, বেশ কিছুদিন যাবত এ ঘরটি নির্মাণ শুরু করা হয়। ঘরের ভিটির চার দিক দিয়ে ইটের গাথুনী দিয়ে তাতে বালি দিয়ে বরাট করা হয়। গত মঙ্গলবারও কাঠ মিস্ত্রিরা ঘরের চালের টিনের কাজ করে। তিনদিন বিরতির পর আজ শনিবার আবারো ঘরের টিনের বেড়ার কাজ করার সময় বিকালে ঘর থেকে দুর্গন্ধ বের হতে থাকে। মাটির যে জায়গা থেকে দুর্গন্ধ পাওয়া গেছে সেখানে কিছু বালু সরালে মহিলার মাথার চুল বের হয়ে আসে। পরে ঘটনাটি স্থানীয় চেয়ারম্যান ও পুলিশকে জানানো হয়। তিনি জানান, নির্মানাধিন এ ঘরটি থেকে তাদের মূল বাড়িটি ৪/৫’শ গজ দূরে বিশনন্দী পশ্চিম পাড়ায় অবস্থিত। খবর পেয়ে শনিবার সন্ধ্যায় আড়াইহাজার থানা পুলিশ ও গোপালদী ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘরের ভিটির বালু সরাইয়া বালুর নিচ থেকে এক নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেন।
পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

আড়াইহাজার থানার ইন্সপেক্টর(তদন্ত) শওকত হোসেন জানান,উদ্ধার হওয়ার নারীর লাশে পচন ধরে গেছে,মুখমন্ডল বিকৃত হওয়ায় পরিচয় পাওয়া যাচ্ছেনা। তবে নিহতের হলুদ স্যালোয়ার ও কাদামাখা জামা পড়নে থাকায় বয়স ১৫ থেকে ২০ হতে পারে বলে তিনি অনুমান করছেন। পুলিশ ধারনা করছে হত্যাকারীরা বেশ কয়েকদিন পূর্বে এ নারীকে হত্যা করে ঘরের ভিটির বালুর নিচে পূতে রাখতে পারে।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় লোকজন জানান, জায়গাটি নিরিবিলি স্থানে হওয়ায় স্থানীয় মাদকসেবী ও বখাটে ছেলেদের আড্ডা হয় এখানে।
আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান,হত্যার ঘটনাটির রহস্য উদ্ঘাটন করতে পুলিশ বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে তদন্ত করছে। দ্রুত জড়িত হত্যাকারীদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় আনতে পারবেন বলে জানান।