করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৮৬ টি পরিবারের মাঝে ১ মাসের খাদ্য বিতরণ করলো বিএডিসি

1

মোহাম্মদ আবদুল অদুদ : মিশিগান বাংলাদেশী আমেরিকানদের উদ্যোগে ও বিএডিসির পরিচালনায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৮৬ টি পরিবারের মাঝে ১ মাসের খাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। আমেরিকার হ্যামট্রামিক, ডেট্রয়েট, ওয়ারেন, শেলবি টাউনশিপ এবং লানসিং শহরের ৮৬টি পরিবারের ৪ শতাধিক সদস্যের জন্য ছিল এ আয়োজন।বিশেষ করে নতুন অভিভাসী, শারীরিকভাবে অক্ষম, শরণার্থী, ফুড স্ট্যাম্প ও বেকারভাতার সুবিধাবঞ্চিত, গাড়ী ও স্বাস্থ্যবীমা নেই এমন ব্যক্তিরা পেয়েছেন এসব খাদ্যসামগ্রী।
খাদ্যসামগ্রীর প্যাকেজের মধ্যে ছিল ৪০ পাউন্ড চাল, ২৫ পাউন্ড ময়দা, ১ জার রান্নার তেল, ৮ পাউন্ড করে ২ রকমের মশুর ডাল, ১০ পাউন্ড পেয়াজ, নিডো মিল্ক পাউডার, চিনি, লবণ, বেসন, খেজুর ১ ব্যাগ করে, রান্নার উপকরণ ও ফেস মাস্ক প্রভৃতি। এসব সরবরাহ করেছে আল-আমিন গ্রোসারি ও জমির গ্রোসারি।

ফুড বাস্কেট ডিস্ট্রিবিউশনের সার্বিক দায়িত্বে ছিলেন বিএডিসির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক প্রেসিডেন্ট ড. নাজমুল হাসান শাহীন ও বিএডিসির বর্তমান প্রেসিডেন্ট মুহিত মাহমুদ। সহযোগীতায় ছিলেন বিএডিসির সেক্রেটারী জিয়া হক, বিএডিসি ১৩ কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্ট কমিটি চেয়ারম্যান গিয়াস তালুকদার, বিএডিসি ১৪ কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্ট কমিটি চেয়ারম্যান রেজাউল চৌধুরী, ভাইস প্রেসিডেন্ট কাউসার দেওয়ান, ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সোলায়মান, ভাইস প্রেসিডেন্ট আজিজ চৌধুরী, বিএডিসির জয়েন্ট সেক্রেটারী ও হ্যানট্রামিক সিটি কাউন্সিলম্যান নাঈম চৌধুরী, সেক্রেটারী ফর স্মল বিজনেস এফেয়ার্স আবুল আজাদ, সেক্রেটারী ফর ইয়ুথ এফেয়ার্স জিয়াউদ্দিন জয়, বিএডিসির জয়েন্ট সেক্রেটারী মন্জুরুল করিম তুহিন, কমিউনিটির নেতা কামরুজ্জামান, প্রমুখ। ফান্ড রেইজিং কমিটির দায়িত্বে ছিলেন ড. নাজমুল হাসান (শাহীন), ড. মো: আজিম, রিপা হক, ড. জাকিরুল হক, আরিফ মাহমুদ, মুহিত মাহমুদ, সাদেক সুমন, সোলায়মান বাহার, মনির জামান, আহম্মেদ খান জামি, সালমা সাইফ প্রমুখ।
কমিউনিটিতে যেসব পরিবারের সহায়তা লাগবে তার তালিকা করতে সহায়তা করেন কাউসার দেওয়ান, মোস্তফা কামাল, সেলিম আহাম্মেদ, আরমানী আসাদ, মন্জুরুল করিম তুহিন, মো: সোলেমান, জাবেদ চৌধুরী, গিয়াস তালুকদার, রেজাউল চৌধুরী, কাউন্সিলম্যান নাঈম চৌধুরী, ড. মো: আজিম, সীমা আহাম্মেদ প্রমুখ।