লম্বা মানুষের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা দ্বিগুণ

0

সংক্রমণ কেবল নিম্নগামী ড্রপলেটের মাধ্যমেই নয়, অ্যারোসলের মতো ঊর্ধ্বগামী প্রক্রিয়ায়ও সম্ভব’

নতুন একটি গবেষণায় দেখা গেছে, ছয় ফিট বা তার বেশি লম্বা মানুষ অন্যান্যদের তুলনায় দ্বিগুণ হারে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন।

ব্রিটিনের ইউনিভার্সিটি অব ম্যানচেস্টারের বিশেষজ্ঞদের অংশগ্রহণে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বব্যাপী পরিচালিত জরিপে দুই হাজার মানুষের তথ্য সংগ্রহ করা হয়। উদ্দেশ্য ছিল- ব্যক্তিগত জীবনাচরণ, কাজ ও বসবাসের পরিবেশ কীভাবে করোনাভাইরাস সংক্রমণে প্রভাব ফেলতে পারে তা যাচাই করা।

গবেষণায় উঠে এসেছে, বাতাসের মাধ্যমে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ছড়ানোর কারণে অপেক্ষাকৃত লম্বা মানুষেরা তুলনামূলক বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন। শুধুমাত্র ড্রপলেটের মাধ্যমে সংক্রমণ ছড়ালে অবশ্য এই ঝুঁকি থাকতো না।

এ বিষয়ে ইউনিভার্সিটি অব ম্যানচেস্টারের প্রফেসর ইভান কন্টোপ্যান্টেলিস বলেন, “উচ্চতা এবং সংক্রমণ নির্ণয়ের ক্ষেত্রে এই জরিপের ফলাফল থেকে বোঝা যায় যে, সংক্রমণ কেবল নিম্নগামী ড্রপলেটের মাধ্যমেই নয়, অ্যারোসলের মতো ঊর্ধ্বগামী প্রক্রিয়ায়ও সম্ভব।”

আরও কিছু পরীক্ষায় বিষয়টি উঠে এলেও তাদের পরীক্ষা পদ্ধতিটি অভূতপূর্ব বলে দাবি করেন প্রফেসর ইভান।

“তাই এখনও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা জরুরি। কারণ ড্রপলেটের মাধ্যমে সংক্রমণ ছড়ানোর ঝুঁকি এখনও রয়ে গেছে।”

 গবেষণায় আরও উঠে এসেছে, যৌথভাবে ব্যবহৃত কক্ষ কিংবা রান্নাঘর থেকেও করোনাভাইরাস সংক্রমণ ছড়াতে পারে।
সূত্রঃ Dhaka Tribune