সমাজ পরিবর্তনের চেষ্টায় সিদ্ধিরগঞ্জে তরুণ যুবকেরা

1

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: বেশ কয়েক বছর ধরেই সমাজের নানা অসংগতি পরিবর্তনের চেষ্টায় নিজেদের উৎসর্গ করে বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন কয়েকজন যুবক। নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন হীরাঝিল আবাসিক এলাকায় এদের বসবাস। পেশায় সবাই ছাত্র। তবে এদের প্রাণবন্ত উদ্দমী করতে পাশে থেকে অন্য পেশার কিছু মানুষও সহযোগিতা করছেন। সহযোগী ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন সাংবাদিক, শিক্ষক এবং ব্যবসায়ী।
দীর্ঘদিন ধরে এই কয়েকজন যুবক বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে দলবদ্ধ হয়ে সমাজের গরীব অসহায় শিশুদের শিক্ষার ব্যবস্থা ও পোশাক সংগ্রহ করে অনেকের মুখে হাঁসি ফুটিয়েছে। সড়কে যানজট নিরসনে প্রায়ই রাস্তায় দেখা যায় এদের। সড়ক দুর্ঘটনা রোধে বিভিন্ন এলাকা ভিত্তিক রাস্তায় রোড ব্রেকারের ব্যবস্থা করেছে। মাদক মুক্ত যুব সমাজ গঠনের লক্ষে প্রতিনিয়ত সহপাঠী এবং যুবসমাজকে উৎসাহ যুগিয়ে যাচ্ছে। অল্প বয়সে বিপদে মানুষের পাশে দাড়ানোর সাহস টুকুও তারা করে দেখাতে সক্ষম হয়েছে। এমন আরো অনেক সাহসী ভূমিকায় হীরাঝিলের এই কয়েকজন যুবক প্রতিনিয়ত নিজেদের চিন্তা-চেতনার অবস্থান জানান দিয়ে যাচ্ছে।
তাদের এই সমাজ পরিবর্তনের ধারায় বিশ^ব্যাপী মহামারী পরিস্থিতি সৃষ্টিকারী প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধেও নিজেরদের বিলিয়ে দিতে প্রস্তুত। সমাজ পরিবর্তনের সেই চিন্তা-ভাবনার ধারাবাহিকতায় ২৪ মার্চ মঙ্গলবার বিকেলে “হীরাঝিল একতা সংঘ” এবং “সাহায্যের হাত” সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে চিটাগাংরোড বাস স্ট্যান্ড, পুলিশ বক্স, হীরাঝিল এলাকার বিভিন্ন মসজিদসহ দোকানপাট এবং যানবাহনে জীবাণু নাশক ওষুধ স্প্রে ও জনসাধারণকে সচেতনতা মূলক লিফলেট প্রদান করে।
সমাজ পরিবর্তনের চিন্তা-চেতনার এসব যুবকেরা হচ্ছে “সাহায্যের হাত” নামক সংগঠনের সভাপতি রাজিব হোসেন, সহ সভাপতি সিনবাদ হোসেন, উপদেষ্টা হান্নান শাহ্ এবং “হীরাঝিল একতা সংঘ” নামক সংগঠনের সদস্য এস.কে. শাওন, মেহেদী হাসান সৈকত ও রাশেদুল ইসলাম রাজু। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রতিদিনের সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি এম. এ শাহীন সহ আরো অনেক সুভাকাঙ্খী।