স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

19

স্বামীকে আটকে রেখে এক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার চার আসামির মধ্যে তিন আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। রবিবার (৩০ আগস্ট) বিকেলে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ খাইরুল আমীনের আদালতে আসামিরা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী শাহাবুদ্দীন আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়া তিন আসামি হলেন- মো. বাদশা মিয়া (৩৬), মো. জাবেদ (২৮) ও মো. রবিন (১৯)। অপর আসামি মো. ইব্রাহিমকে (৩০) একদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত।

কাজী শাহাবুদ্দিন আহমেদ বলেন, ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার চার আসামিকে আদালতে হাজির করা হলে তিন আসামি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হন। জবানবন্দিতে তারা ঘটনার বর্ণনা দিয়ে দায় স্বীকার করে নিয়েছেন। অপর আসামি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি না হওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালত একদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন।

গত শনিবার দিবাগত রাতে দেড়টার দিকে পথ রোধ করে স্বামী-স্ত্রীকে আটক করে দুর্বৃত্তরা। এরপর সিএনজিচালিত অটোরিকশার ভেতর ওই নারীর স্বামীকে আটকে রেখে তাকে একটি বাসায় নিয়ে আসামিরা সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করে।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (উত্তর জোন) আশিকুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, এ ঘটনায় রাত আড়াইটার দিকে ৯৯৯-এ অভিযোগ পেয়ে বায়েজিদ থানা পুলিশের একটি টিম অভিযান শুরু করে। রাতভর অভিযান চালিয়ে প্রথমে ভিকটিমসহ তার স্বামীকে উদ্ধার করে। পরে তাদের শনাক্ত মতে ৪ জনকে আটক করা হয়। আটক চারজন ঘটনার বিষয়ে স্বীকার করেছে।