৭দিনে ৫লক্ষ টাকা দিতে তিতাসকে হাইর্কোটের নির্দেশ

2

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় ৩৭ পরিবারকে ৭দিনের মধ্যে ৫লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিতে তিতাসকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইর্কোট। বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) রিট শুনানিতে এ আদেশ দেয় উচ্চ আদালত।এছাড়াও বিস্ফোরণের ঘটনায় সব পক্ষের (রাজউক, ডিপিডিসি, তিতাস, মসজিদ কমিটি) দায় রয়েছে বলেও এ রিট শুনানিতে বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন।আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করছেন অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, ব্যারিস্টার মার ই-য়াম খন্দকার।

এর আগে এ ঘটনায় নিহত ও আহতদের প্রত্যেক পরিবারকে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে করা রিটের আদেশ দেওয়া হয়। এ বিষয়ে রিট আবেদনের শুনানি শেষে মঙ্গলবার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ বুধবার আদেশের দিন ধার্য করেন।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা মার-ই-য়াম খন্দকার গতকাল হাইকোর্টে জনস্বার্থে এ রিট পিটিশন করেন। আবেদনে তিনি তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষকে ক্ষতিগ্রস্ত প্রত্যেক পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৫০ লাখ টাকা করে দিতে হাইকোর্টের আদেশ চেয়েছেন।গ্যাস পাইপলাইন মেরামতে অবহেলার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করতে সরকারকে নির্দেশ দেওয়ার জন্যও পিটিশনে জানানো হয়।

এ ছাড়া, সারাদেশের গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানিসহ ইউটিলিটি সার্ভিসের লাইন নিয়মিত তদারকি ও প্রয়োজনে মেরামত করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়ার আবেদন জানানো হয়।

পিটিশনে মার-ই-য়াম খন্দকার বলেন, তিতাস গ্যাস কর্মকর্তারা গ্যাস লাইনের ছিদ্র মেরামতের জন্য মসজিদ কমিটির কাছে ৫০ হাজার টাকা চেয়েছিলেন বলে জানা গেছে। সেই টাকা দেওয়া হয়নি বলে, তা মেরামত করা হয়নি।গত শুক্রবার এশার নামাজের পর নারায়ণগঞ্জের পশ্চিম তল্লা বায়তুস সালাম মসজিদে বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ হয়ে এ পর্যন্ত ২৮ জন মারা গেছেন। অভিযোগ উঠেছে, ভূগর্ভস্থ পাইপলাইন থেকে গ্যাস বের হয়ে মসজিদের নিচতলায় জমা হয় এবং এ গ্যাসের কারণে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।